1. NewsDesk@gmail.com : News Desk : News Desk
  2. admin@nayaalo.com : Palash3700 :
  3. rakib@gmail.com : Admin : Rakib Musabbir
  4. bhairabkantho@gmail.com : saimur : rj saimur

র‌্যাব-৩ অভিযানে ট্রাভেলস মালিক আটক,আরো ১০ ভিকটিম ও দালালের সন্ধান,তাদের বিরোদ্বে পল্টন থানায় মানব পাচার আইনে মামলা

  • আপডেট শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার আব্দুল হান্নান।।    

ফলোআপ সংবাদ

র‌্যাব-৩ অভিযানে ট্রাভেলস মালিক আটক,আরো ১০ ভিকটিম ও দালালের সন্ধান,তাদের বিরোদ্বে পল্টন থানায় মানব পাচার আইনে মামলা

স্টাফরিপোর্টারঃ পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর সৌদি আরবে কাজ করতে গিয়ে লাশ হয়ে দেশে ফিরে আসা ব্রাক্ষণবাড়িযা জেলার নাসিরনগরের উম্মে কুলসুমকে সৌদি পাঠানো ঢাকার এম.এইচ ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল ট্রাভেল এজেন্সিতে র‌্যাবের অভিযানে মালিক মকবুল গ্রেপ্তার, অারো ১০ ভিকটিম সহ দালালের সন্ধান।কুলছুমের লাশের সাথে সৌদি থেকে ৮ লক্ষ টাকা ২ভরি স্বর্ণ ও একটি মোবাইল পাঠিয়েছে বলে হাসপাতাল থেকে মোবাইল ফোনে কুলসুমের পিতাকে জানায় সৌদি হাসপাতালে কর্মরত বাংলাদেশী ঢাকার গাজিপুরের সুপারভাইজার মোঃ কবীর হোসেন।জানা গেছে ট্রাভেরস কর্তৃপক্ষ এসমস্ত টাকা,স্বর্ণ ও মোবাইল আত্নসাৎ করেছে ট্রাভেলস মালিক মকবুল।

জানা যায় সৌদি আরবে চাকুরী করতে গিয়ে গৃহ কর্তার নির্মম নির্যাতনের শিকার হয়ে মৃত্যুবরণ করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার গোর্কণ ইউনিয়নের নুরপুর গ্রামের কিশোরী উম্মে কুলসুম (১৪)। ওই ঘটনায় রিক্রুটিং এজেন্সির মালিক মুকবুল হোসাইন ও তার সহযোগী তারেক কে আটক করে র‌্যাব।

১৭ সেপ্টেম্ভর ২০২০ রোজ বৃহস্পতিবার দুপুর অনুমান দেড় ঘটিকার সময় বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার ফকিরাপুলে অবস্থিত মেসার্স এম.এইচ. ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল নামে ওই রিক্রুটিং এজেন্সির কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে মালিক মুকবুলকে আটক করে র‌্যাব। এ সময় আরো ১০জন ভিকটিম ও দালারের সন্ধান পায় র‌্যাব।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার গোর্কণ ইউনিয়নের নূরপুর গ্রামের শহিদুল ইসলামের মেয়ে উম্মে কুলসুমকে স্থানীয় দালাল গ্রামের লেম্বর অালীর ছেলে আব্দুর রাজ্জাকের মাধ্যমে ত্রিশ হাজার টাকার বিনিময়ে ১৭মাস অাগে সৌদি আরবে পাঠানো হয়।

সেখানে গৃহ কর্তার নির্যাতনের কারণে পরিবার কুলসুমকে দেশে ফিরেয়ে আনার চেষ্টা করলে ও রিক্রটিং এজেন্সি ও দালালের পক্ষ থেকে কোন রূপ সারা পায়নি কুলসুমের পরিবার। জানা গেছে চাকুরীর আশ্বাসে কুলসুমকে সৌদি আরবে পাঠানো হলে, সেখানে নিয়ে এক বাড়িতে গৃহ কর্মীর কাজ দেওয়া হয় কুলসুমকে। পরে সৌদি আরবের গৃহ কর্তা ও তার ছেলে মিলে কুলসুমের দুই হাটু, কোমর, ও পা ভেঙ্গে দেয়। এর কিছু দিন পর একটি চোখ ও নষ্ট করে তারা রাস্তায় ফেলে দেয় কুলসুমকে। সেখান থেকে অন্য লোকের মাধ্যমে কুলসুমকে নেওয়া হয় সৌদি অারবের রিয়াদে অবস্থিত কিং ফয়সাল হাসপাতালে।

হাসপাতাল থেকে কুলসুম মোবাইল ফোনে পরিবারকে আগেই নির্যাতনের কথা জানিয়েছিল। জানুয়ারী মাসে হাসপাতালে ভর্তি থাকাবস্থায় এক নার্সের মোবাইল ফোনের মাধ্যমে সর্বশেষ তার পরিবারের লোকজনের কাছে ফোন করে কুলসুম। প্রায় সাড়ে তিন মিনিটের এক ভিডিও কলে দেখা যায় হাসপাতাল থেকে পরিবারের লোকজনের সাথে কথা বলছে কুলসুম। গৃহ কর্তা থাকে নির্যাতন করে পা ভেঙ্গে ও চোখ নষ্ট করে দিয়েছে বলে কুলসুম জানায় তার পরিবারের লোকজনকে। সে আর হাটা চলাফেরা করতে পারছে না। ওই ভিডিও কলে সে তার পরিবারের লোকজনকে কোমর থেকে পায়ের নিচের অংশের আঘাতের চিহ্ন ও দেখায়। ৯ই আগষ্ট সৌদি আরবের রিয়াদের কিং ফয়সাল নামক হাসপাতালে মারা যায় কিশোরী কুলসুম (১৪)।

১১ সেপ্টেম্বর কুলসুমের মরদেহ আনা হয় দেশে।বিষয়টি নজরে আসে এশিয়ান টেলিভিশন ও দৈনিক আমার সংবাদের নাসিরনগর প্রতিনিধি, নায়া আলো ডটকম এর স্টাফরিপোর্টার আব্দুল হান্নানের। তিনি বিষযটি নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করলে আরো একাদিক পত্রিকায় ও টিভি চ্যানেলে সংবাদ প্রকাশিত হয়।সংবাদ প্রকাশের পর আর ওই ঘটনায় কুলসুমের বাবা শহিদুল ইসলামের জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর মহাপরিচালক বরাবর লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে রিক্রুটিং এজেন্সিতে অভিযান চালায় র‌্যাব।

র‌্যাব- ৩ এর এডিশনাল এস.পি বিনা রানী দাস মোবাইল ফোনে এ প্রতিনিধিকে মেসার্স এম.এইচ ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল রিক্রুটিং এজেন্সির মালিক মুকবুলকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করে, তিনি বলেন ইতিমধ্যে র‌্যাব আর ও ১০ জন ভিকটিম ও একাদিক দালালের সন্ধান পেয়েছেন। তাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান। তিনি বলেন ঢাকা যাত্রাবাড়ি এলাকার এক মেয়েকে ও তারা ফুসলিয়ে সৌদি আরব পাঠায়। ওই মেয়ে সেখানে গিয়ে নির্যাতনের স্বীকার হয়ে পুলিশকে জানালে গৃহ কর্তা তাকে গাড়ি থেকে ধাক্কা দিয়ে রাস্তায় ফেলে দিলে তার পা ভেঙ্গে যায়। বীণা রানী দাস জানান এ বিষয়ে মকবুল ও দালাল রাজ্জাকের বিরোদ্বে পল্টন থানায় মানব পাচর আইনে মামলা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved Nayaalo.com 2020
Site Customized By NewsTech.Com