1. admin@nayaalo.com : Ashrafhabib :
  2. nayaalo.com@gmail.com : News Desk : News Desk
ভৈরব মেঘনা নদীতে বান্ধবীর সঙ্গে নদীতে ঘুরতে গিয়ে নিখোঁজ আনিকা! - Nayaalo
শিরোনাম
জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী পাগল হাসান সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত! ভৈরবে সম্মিলন ফাউন্ডেশনের ৩য় শাখা উদ্বোধন ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা। কুলিয়ারচর উপজেলায় ইট বোঝাই ট্রাক থেকে পরে স্কুল ছাত্রের মৃত্যু! রায়পুরা রক্তবন্ধু মানবকল্যাণ সোসাইটির পক্ষ থেকে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ। ভৈরব উপজেলা’বাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃমোশারফ হোসেন। ভৈরবে ভাইয়ের হাতে ভাই খুন! ছেলেকে হত্যা করার পর বাবার আত্মাহত্যা! বাংলাদেশ প্রাইভেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এসোসিয়েশন,ভৈরব শাখার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে চাঁদা দাবির অভিযোগ করার প্রতিবাদে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত। ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স প.প. কর্মকর্তা ডাঃবুলবুল আহমদ এর নেতৃত্বে বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস ২০২৪ র‌্যালি ও আলোচনা সভা পালন। ভালোবাসার বীজ – সাঈদা নাঈম

ভৈরব মেঘনা নদীতে বান্ধবীর সঙ্গে নদীতে ঘুরতে গিয়ে নিখোঁজ আনিকা!

  • আপডেটের সময় : শনিবার, ২৩ মার্চ, ২০২৪
  • ১৭ জন দেখেছেন

 

অনলাইন ডেস্ক :

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ট্রলারডুবিতে আনিকা আক্তার (১৮) নামে এক শিক্ষার্থী নিখোঁজ হয়েছেন।

তিনি বান্ধবীর সঙ্গে নৌকায় ঘুরতে গিয়েছিলেন। আনিকা নরসিংদীর বেলাব থানার দড়িকান্দি এলাকার দারু মিয়ার মেয়ে। তিনি এবার নরসিংদী মডেল কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেছেন।
শুক্রবার (২২ মার্চ) সন্ধ্যা ৬টায় দিকে ভৈরবের মেঘনা নদীতে সৈয়দ নজরুল ইসলাম সেতুর নিচে বালুবাহী বাল্কহেডের ধাক্কায় তাদের বহনকারী ট্রলারটি ডুবে যায়। এ ঘটনায় আরও আটজন নিখোঁজ রয়েছেন।

জানা গেছে, শুক্রবার খালার বাড়িতে যান আনিকা। সেখান থেকে বান্ধবী রুবাকে নিয়ে মেঘনায় ভ্রমণের জন্য ট্রলারে ওঠেন। এসময় বালুবাহী বাল্কহেডের ধাক্কায় তাদের ট্রলারটি ডুবে যায়। ট্রলারটিতে ২০ জনের মতো যাত্রী ছিলেন। এদের মধ্যে অজ্ঞাতপরিচয়ে এক নারীর মরদেহসহ ১২ জনকে উদ্ধার করা হয়।

স্ত্রী-ছেলে-মেয়েসহ এখনো নিখোঁজ কনস্টেবল, উদ্ধার অভিযান বন্ধ

মেঘনায় ট্রলারডুবিতে নারী নিহত, পরিবারসহ পুলিশ কনস্টেবল নিখোঁজ

নিখোঁজ আনিকার ভাই মেহেদি হাসান বলেন, আমার বোন খালার বাড়িতে গিয়েছিল। সেখান থেকে তার বান্ধবী রুবার সঙ্গে ভৈরবের মেঘনা নদীতে ঘুরতে যায়। ট্রলারে নদী ভ্রমণের সময়ে হঠাৎ বালুবাহী বাল্কহেডের ধাক্কায় ট্রলারটি ডুবে যায়। রুবা সাঁতার কেটে প্রাণে বেঁচে ফিরলেও আমার বোন ফিরতে পারেনি।

আনিকার বাবা দারু মিয়া বলেন, ইফতারের পর নামাজ শেষে জানতে পারলাম আমার মেয়ে মেঘনা নদীতে নৌকা ডুবে নিখোঁজ হয়েছে। আমি জানতাম আমার মেয়ে তার খালার বাসায় গেছে। ভৈরবে যে তার বান্ধবীর সঙ্গে গেছে সেটি জানতাম না। কয়েকজন উদ্ধার হলেও আমার মেয়ের কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি।

সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর...
© All rights reserved © 2022 নায়াআলো ডটকম
Developed By HM.SHAMSUDDIN