1. admin@nayaalo.com : Ashrafhabib :
  2. nayaalo.com@gmail.com : News Desk : News Desk
ভৈরব কালিকা প্রসাদ ইউনিয়নে আপনাদের অবদানটা কি? - Nayaalo
শিরোনাম
ভৈরবে পথফুল ফাউন্ডেশনের ৫ম বর্ষপূর্তি উৎযাপন। সৌদি প্রবাসী ঐক্য পরিষদ, ভৈরব উপজেলা বি.এন.পি’র উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ। কাউন্সিল অব কনজিউমার রাইটস বাংলাদেশ (সিআরবি) মেলান্দহ হতদরিদ্রদের মাঝে শীত বস্ত্র বিতরন ও পরিচিতি অনুষ্ঠান গোল্ডেন লাইফ ইন্সুরেন্সের উপদেষ্টা এম.তৌহিদুল আলম এর সাথে ভৈরব সার্ভিসিং সেলের কর্মকর্তাদের ২০২৩ইং সালের শুভেচ্ছা ও মতবিনিময়। কুলিয়ারচরে অলিভ ডায়াগনস্টিক সেন্টারের শুভ উদ্বোধন উপলক্ষে হতদরিদ্র বৃদ্ধ ও বৃদ্ধাদের মাঝে হাটার লাটি বিতরণ। নাগর ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদ, কালিকা প্রসাদ এর কার্যালয় উদ্বোধন ও পরিচিতি সভা। আসন্ন ঢাকা-১০ আসনে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকার মাঝি হয়ে জনগণের পাশে থাকতে চায় নজরুল বেপারী ভৈরবে ১০ বছরের সংসার জীবনে অবশেষে স্বামীর হাতে মৃত্যু!স্বামীসহ আটক ৩ জন। ভৈরবে নানা আয়োজনে মোহনা টিভির ১৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত ১১ নভেম্বর

ভৈরব কালিকা প্রসাদ ইউনিয়নে আপনাদের অবদানটা কি?

  • আপডেটের সময় : রবিবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৩৩৬ জন দেখেছেন

ভৈরব কালিকা প্রসাদ ইউনিয়নে আপনাদের অবদানটা কি?বঙ্গবন্ধুর নৌকা কখনও ডুবেনা, কেউ ডুবাতে পারেনা।
৫ বছর পর পর যারা বসন্তের কোকিলের মত ইউপি নির্বাচনের মঞ্চে এসে বিরোধীপক্ষের গোষ্ঠী উদ্ধার করেন; আপনাদের বলি কালিকাপ্রসাদবাসীর জন্য আপনাদের অবদানটা কী? গত ৫ বছরে কালিকাপ্রসাদের জনগণের কার কী উপকার‍ করেছেন আপনারা? তাহলে কোন দাবী নিয়ে আসেন জনগণের সামনে?
অনেকদিন পর হাতে মাইক পেলে কি বলবেন না বলবেন খেই হারিয়ে ফেলেন। অনেক সময় দেখা যায় স্ববিরোধী বক্তব্যও দেন। এতদিন পর পর এসে একেক মঞ্চে উঠে একেকধরনের বক্তব্য যে দিয়ে যান ; এলাকাবাসীর কাছে আপনাদের গ্রহণযোগ্যতা টা কতটকু? এলাকাবাসী আপনাদের আগেও প্রত্যাখান করেছে, আগামীতেও করবে ইনশাআল্লাহ। আরেকটা কথা জেনে রাখুন স্থানীয় নির্বাচনে হারজিতের সাথে নৌকাডুবির কোন সম্পর্ক নেই। বঙ্গবন্ধুর নৌকা কখনও ডুবেনা, কেউ ডুবাতে পারেনা।

আপনারা যারা কালিকাপ্রসাদে তথাকথিত সুশীল হিসেবে পরিচিত তারা ১৯৯৮ সাল থেকে এই বাচ্চা ছেলেটার বিরোধীতা করছেন অথচ গত ২৩ বছরে চেয়ে দেখুন তো আপনাদের অর্জন টা কী, আর তার অর্জন টা কী? এই ২৩ বছরে একটা চারাগাছ থেকে সে আজ বটগাছের ন্যায় মহীরুহ। আর আপনাদের প্রয়োজন ফুরিয়ে এখন তলানীতে। হিংসে বিদ্বেষ দিয়ে এখন পর্যন্ত হারানো ছাড়া কিছু অর্জন করতে পারেন নি।

আপনারা নৌকার প্রার্থীর বিরোধীতা করার জন্য শত শত অযুহাত দেখাতে পারেন। কিন্তু নৌকার সাথে থাকার জন্য একটা কারণই যথেষ্ট। আর সেটা হচ্ছে নৌকা প্রতীক বঙ্গবন্ধুর মার্কা, শেখ হাসিনার মার্কা। এবার মাথায় মগজ থাকলে চিন্তা করুন আপনি/আপনারা কার বিরোধীতা করছেন?

এই যে ৫ বছর পর এসে মাইকে গলা ফাটিয়ে চলে যান এরপর কি কখনও আপনার নির্বাচিত প্রার্থী জনগণের সুখেদুঃখে ছিল কিনা কখনও খোজ নিয়েছেন? তাহলে জনগণ কেন আপনাদের ডাকে সাড়া দিবে? তারা জানে আপনারা সুশীল বসন্তের কোকিল। সিজন ছাড়া আপনাদের পাওয়া যায়না।

নৌকার প্রার্থী আপনার অপছন্দের হতেই পারে, কিন্তু মার্কাটা তো আপনার পছন্দের! তবে কেন বিরোধীতা? আপনি যদি বঙ্গবন্ধুর আদর্শে উজ্জীবিত হয়ে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করে থাকেন, তাহলে আপনি কখনই নৌকার বিরুদ্ধে যেতে পারেন না। বক্তব্য শেষে বলবেন জয় বঙ্গবন্ধু, আবার করবেন নৌকার বিরোধিতা! এ কেমন হিপোক্রেসি!
সংগ্রহ :ইমরান হোসাইন এর ফেসবুক স্ট্যাটাস থেকে

সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর...
© All rights reserved © 2022 নায়াআলো ডটকম
Developed By HM.SHAMSUDDIN