1. admin@nayaalo.com : Ashrafhabib :
  2. nayaalo.com@gmail.com : News Desk : News Desk
বাংলাদেশ প্রাইভেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এসোসিয়েশন,ভৈরব শাখার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে চাঁদা দাবির অভিযোগ করার প্রতিবাদে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত। - Nayaalo
শিরোনাম
ডিপজলের সম্মানহানি করার কোনো অধিকার নিপুণের নেই: দেলোয়ার জাহান ঝন্টু ভৈরবে “শেখ হাসিনা ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি”অনুমোদন পেল। বাজিতপুর উপজেলার বাহেরবালী গ্রামে মিনহাজের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও নিরপরাধ তরুন সমাজ সেবক তানবিরের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করায় পাল্টা মানববন্ধন রফিকুল ইসলাম মহিলা কলেজ, ভৈরব এর রোভার গ্রুপ বিভাগীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন। নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) ভৈরব শাখা ৩য় বারের মতো জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ সংগঠনের স্বীকৃতি লাভ। নিরাপদ সড়ক চাই ভৈরব শাখার পরিচয় পত্র বিতরণ ও মতবিনিময় অনুষ্ঠিত। নূরানী মশার কয়েল ফ্যাক্টরীতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে প্রায় কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি ! বিএমডিসি ছাড়া ভুল চিকিৎসা হয়েছে বলার অধিকার কারও নেই: স্বাস্থ্যমন্ত্রী যে মেয়ের মা যতো বেশি চালাক,সেই মেয়ের কঁপালে ততো তাড়াতাড়ি তালাক! ভৈরব ডক্টরস ক্লাবের নব নির্বাচিত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক কে কেয়ার জেনারেল হাসপাতাল -এর পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা।

বাংলাদেশ প্রাইভেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এসোসিয়েশন,ভৈরব শাখার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে চাঁদা দাবির অভিযোগ করার প্রতিবাদে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত।

  • আপডেটের সময় : শনিবার, ৬ এপ্রিল, ২০২৪
  • ৪৪ জন দেখেছেন

মুহাম্মদ কাইসার হামিদ,বিশেষ প্রতিনিধি:

ফার্মাসিউটিক্যালস রিপ্রেজেনটেটিভ এসোসিয়েশন (ফারিয়া) ভৈরব শাখার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক কর্তৃক বাংলাদেশ প্রাইভেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এসোসিয়েশন ভৈরব এর সভাপতি মো. মোশারফ হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক ডা. মুহাম্মদ মিজানুর রহমান কবিরের বিরুদ্ধে চাঁদা দাবির অভিযোগ করার প্রতিবাদে প্রতিবাদ সভা করেছে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
গত ২ এপ্রিল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সেন্ট্রাল হাসপাতাল ভৈরব এর অফিস কক্ষে এ প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এসময় বাংলাদেশ প্রাইভেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এসোসিয়েশন, ভৈরব এর সভাপতি মো. মোশারফ হোসেন এর সভাপতিত্বে ও সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ডা. মুহাম্মদ মিজানুর রহমান কবির এর সঞ্চালনায় বক্তারা বলেন, গত মার্চ মাসের শেষের দিকে ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধি সংগঠন ফারিয়া ভৈরব শাখা’র সভাপতি পায়েল মুন্সি ও সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম স্থানীয় সাংবাদিকদের নিকট অভিযোগ করে বলেন, হাসপাতাল মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ প্রাইভেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এসোসিয়েশন ভৈরব এর সভাপতি মো. মোশারফ হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক ডা. মুহাম্মদ মিজানুর রহমান কবির নাকি তাদের নতুন কমিটি গঠন অনুষ্ঠানের জন্য গত তিন মাস আগে ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের নিকট সংগঠনের পক্ষ থেকে একলাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। এছাড়া তাদের নাকি হুমকি ধামকিও দেওয়া হচ্ছে। এই চাঁদার টাকা দিতে না পারায় এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে চারটি ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিকে হাসপাতালে নিষিদ্ধ ঘোষণার নোটিশ দেয়া হয়েছে।
ফারিয়া’র সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক কর্তৃক আনীত সকল অভিযোগ মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন দাবী করে বক্তারা বলেন, ভৈরবে ইদানিং সকল প্রাইভেট হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে আগত সেবা প্রার্থী রোগী ও তাদের স্বজনদের বিভিন্ন ঔষধ কোম্পানীর বিক্রয় প্রতিনিধিগণ দ্বারা বিভিন্নভাবে হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে। তারা চিকিৎসকদের ব্যবস্থাপত্র নিয়ে টানাটানি করা, মহিলা রোগীদের প্রেসক্রিপশনের ছবি তুলতে গিয়ে রোগীদের প্রাইভেসি নষ্ট করা ও হেনস্থা করা, চিকিৎসকদের কক্ষে রোগীদের ঢুকতে না দিয়ে নিজেরা ভিজিটের জন্য ঢুকে অসুস্থ ও সিরিয়াস রোগীদের বাইরে দাঁড় করিয়ে রাখা, চিকিৎসকদের ভিজিটের জন্য নির্ধারিত সময়ের পরে চেম্বারের সামনে ভিড় করা এবং চিকিৎসকদের মূল্যবান সময়ের অপচয় করে নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে নিজ খেয়ালখুশিমতো আসা-যাওয়া করার অভিযোগ পেয়ে বাংলাদেশ প্রাইভেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ বেশ কিছুদিন যাবত বিষয়গুলো গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করে এবং কতিপয় রোগী ও রোগীর স্বজনদের অভিযোগের ভিত্তিতে এসিআই ফার্মাসিউটিক্যালস লিঃ, জেনারেল ফার্মাসিউটিক্যালস লি., এরিস্টো ফার্মা. লি. ও সোমাটেক ফার্মা. লি. মোট চারটি ঔষধ কোম্পানীর বিক্রয় প্রতিনিধিগণকে ভৈরবের প্রাইভেট হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে প্রবেশসহ সকল চিকিৎসকদের ভিজিট করা থেকে বিরত থাকতে এবং সকল হাসপাতাল ও ক্লিনিকের ফার্মেসীতে ঔষধের অর্ডার নেওয়া ও কোনরূপ আর্থিক লেনদেন করা হতে বিরত থাকতে গত ২৮ মার্চ বাংলাদেশ প্রাইভেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এসোসিয়েশন, ভৈরব এর পক্ষ থেকে সংগঠনের সভাপতি মো. মোশারফ হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক ডা. মুহাম্মদ মিজানুর রহমান কবিরের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তি সকল বেসরকারি হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে সাঁটিয়ে দেওয়া হয়। চারটি কোম্পানির প্রতিনিধিকে হাসপাতাল, ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ক্লিনিক গুলোতে প্রবেশ নিষিদ্ধ করায় ফারিয়া’র সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ তাদের সংগঠনের সদস্যরা ক্ষিপ্ত হয়। এর পর থেকে বাংলাদেশ প্রাইভেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এসোসিয়েশন, ভৈরব এর সভাপতি মো. মোশাররফ হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক ডা. মুহাম্মদ মিজানুর রহমান কবির সহ সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক হানিফুর রহমান সুমন ও সদস্য সচিব মো. এমরান সুলতান জাভেদের বিরুদ্ধে মিথ্যা ঘটনা সাজিয়ে চাঁদা দাবি ও হুমকি ধামকির অভিযোগ করে। যা আদৌও সত্য নয়। তবে কমলপুর নিউটাউন এলাকায় ভেনিস বাংলা কমিউনিটি সেন্টারে বাংলাদেশ প্রাইভেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এসোসিয়েশন, ভৈরব-এ দিনব্যাপী নবগঠিত কার্যকরী কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠান ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার জন্য ও সার্বিক সহযোগিতা কামনা করে গত ৯ ফেব্রুয়ারি-২০২৪ ইং তারিখ বিভিন্ন ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের বরাবর চিঠি দেন বাংলাদেশ প্রাইভেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এসোসিয়েশন, ভৈরব-এর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। এতে চাঁদা দাবির কোন বিষয় উল্লেখ ছিলনা।
ওই অনুষ্ঠানে বিভিন্ন কোম্পানির প্রতিনিধিরা তাদের সাধ্যমতো সহযোগীতা করার আশ্বাস দেন ও অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে অনুষ্ঠানকে সাফল্য মণ্ডিত করে তুলেন। যদি ওই সময় সংগঠনের পক্ষ থেকে কেউ ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের নিকট চাঁদা দাবি করতো তাহলে এতদিন (গত তিন মাসের মধ্যে) কেউ কোন অভিযোগ করেনি কেন? যখন চারটি ঔষধ কোম্পানীর প্রতিনিধিকে হাসপাতাল, ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ক্লিনিক গুলোতে প্রবেশ নিষিদ্ধ করে নোটিশ করা হয় তখন থেকেই তাদের গায়ে লেগে যায়। তাই তারা ক্ষিপ্ত হয়ে চাঁদা দাবি ও হুমকি ধামকির মিথ্যা অভিযোগ সাজিয়ে ফারিয়া ভৈরব শাখার সভাপতি ও সম্পাদকের মাধ্যমে সাংবাদিকদের নিকট মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন অভিযোগ করে বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক, অনলাইন নিউজ ভার্সন, অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও অনলাইন টিভিতে সংবাদ প্রচার করে। বক্তারা এসব মিথ্যা বানোয়াট ও ভিত্তিহীন অভিযোগের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে প্রকাশিত সংবাদ গুলোর প্রতিবাদ জানান।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ প্রাইভেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এসোসিয়েশন ভৈরব উপজেলা শাখার উপদেষ্টা ডা. মো. আজিজুল হক স্বপন (আনোয়ারা জেনারেল হাসপাতাল প্রাইভেট), ডা. আব্দুল্লাহ আল-মারুফ (শিশু ডায়াগনস্টিক সেন্টার), ডা. মো. শফিকুল ইসলাম (নুরজাহান ডায়াগনস্টিক সেন্টার) ও মো. আল-আমিন (ভৈরব ইউনাইটেড হাসপাতাল), কার্যকরী কমিটির সিনিয়র সহ- সভাপতি এ.বি. সিদ্দিক ভূঁইয়া গনি (ন্যাশনাল জেনারেল হাসপাতাল), সহ-সভাপতি লায়ন মুহাম্মদ কামাল হোসেন (মাতৃকা জেনারেল হাসপাতাল), যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিমল বিশ্বাস (মেঘনা জেনারেল হাসপাতাল) ও মো. রুহুল আমিন (মডার্ন জেনারেল হাসপাতাল), সাংগঠনিক সম্পাদক হানিফুর রহমান সুমন (ভৈরব ইউনাইটেড হাসপাতাল), অর্থ সম্পাদক বিধান চন্দ্র রায় (পদ্মা জেনারেল হাসপাতাল ভৈরব), প্রচার সম্পাদক মো. ফয়জুল আলম (স্বদেশ হাসপাতাল প্রাইভেট), সাংস্কৃতিক সম্পাদক আশরাফুল আলম (কেয়ার জেনারেল হাসপাতাল), মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ডা. মিশুতী রানী ঘোষ (সূর্যাই মেডিকেল সেন্টার), কার্যকরী সদস্য ডা. মো. নজরুল ইসলাম (সাজেদা-আলাল জেনারেল হাসপাতাল), ডা. আব্দুল আওয়াল ( সেন্ট্রাল হাসপাতাল ভৈরব), ডা. মো. মাসুদ রানা (মা ডায়াগনস্টিক সেন্টার), কাজী আব্দুল্লাহ আল-মাছুম (সূর্যের হাসি ক্লিনিক), মো. শফিকুল ইসলাম হিরণ (শাপলা ডায়াগনস্টিক সেন্টার) ও সদস্য সচিব সেন্ট্রাল হাসপাতা ভৈর এর ম্যানেজার মো. এমরান সুলতান জাভেদ।
উপজেলার সুশীল সমাজের গন্যমান্য অনেকেই বলেন, ডা. মুহাম্মদ মিজানুর রহমান কবির একজন সৎ নিষ্ঠাবান ও গরীবের বন্ধু। তাকে অনেকেই গরীবের ডাক্তার হিসেবে চিনেন। সে এলাকার গরীব দুঃখী অসহায় মানুষকে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকেন। তিনি একজন দানবীরও বটে। তার মতো ব্যক্তি কখনো চাঁদা দাবী করতে পারেনা। তারা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর...
© All rights reserved © 2020-2024 নায়াআলো ডটকম
Developed By HM.SHAMSUDDIN