1. admin@nayaalo.com : Ashrafhabib :
  2. nayaalo.com@gmail.com : News Desk : News Desk
ছেলেকে হত্যা করার পর বাবার আত্মাহত্যা! - Nayaalo
শিরোনাম
ডিপজলের সম্মানহানি করার কোনো অধিকার নিপুণের নেই: দেলোয়ার জাহান ঝন্টু ভৈরবে “শেখ হাসিনা ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি”অনুমোদন পেল। বাজিতপুর উপজেলার বাহেরবালী গ্রামে মিনহাজের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও নিরপরাধ তরুন সমাজ সেবক তানবিরের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করায় পাল্টা মানববন্ধন রফিকুল ইসলাম মহিলা কলেজ, ভৈরব এর রোভার গ্রুপ বিভাগীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন। নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) ভৈরব শাখা ৩য় বারের মতো জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ সংগঠনের স্বীকৃতি লাভ। নিরাপদ সড়ক চাই ভৈরব শাখার পরিচয় পত্র বিতরণ ও মতবিনিময় অনুষ্ঠিত। নূরানী মশার কয়েল ফ্যাক্টরীতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে প্রায় কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি ! বিএমডিসি ছাড়া ভুল চিকিৎসা হয়েছে বলার অধিকার কারও নেই: স্বাস্থ্যমন্ত্রী যে মেয়ের মা যতো বেশি চালাক,সেই মেয়ের কঁপালে ততো তাড়াতাড়ি তালাক! ভৈরব ডক্টরস ক্লাবের নব নির্বাচিত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক কে কেয়ার জেনারেল হাসপাতাল -এর পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা।

ছেলেকে হত্যা করার পর বাবার আত্মাহত্যা!

  • আপডেটের সময় : সোমবার, ৮ এপ্রিল, ২০২৪
  • ২৯ জন দেখেছেন

অনলাইন ডেস্ক:

মশিউরের স্ত্রী মজিদা খাতুন ডলি জানান, ‘পাওনা টাকা ফেরত না পাওয়া ও ব্যবসায় মন্দা যাওয়ায় আর্থিক অনটনে ছিলাম আমরা। আমার টিউশনির টাকা দিয়ে দুই সন্তানের পড়ালেখার খরচ চালিয়ে সংসারের ব্যয় বহন করা খুব কষ্টসাধ্য হয়ে যায়। এ কারণে আমার স্বামী হতাশায় ছিলেন। অভাব-অনটনের কারণে হতাশা থেকেই হয়তো ছেলেকে হত্যার পর আত্মহত্যা করেছেন। মেয়েকেও হত্যার চেষ্টা করেছিলেন।’

তিনি জানান, ‘তার স্বামী আবাসন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের চাকরি ছেড়ে শেয়ারবাজারের সেকেন্ডারি লেভেলে ব্যবসা করতেন। তবে সেখান থেকে খুব একটা আয় হতো না। গত এক সপ্তাহ থেকে ওই ব্যবসার অবস্থা আরও খারাপ হয়। এছাড়া তার স্বামী পাঁচ–ছয় বছর আগে ১৪ লাখ টাকা দিয়ে জমি কিনে প্রতারিত হন। সেই টাকা তিন–চার বছর ধরে দিচ্ছি দেব বলে ঘোরানো হচ্ছে তাদের। সংসারের খরচ জোগান দিতে তিনি চারটি টিউশনি করেন।’

ডলি বলেন, ‘টিউশনি থেকে মাসে আয় হয় আট হাজার টাকা। রোববার দুপুর দেড়টার দিকে বাসা থেকে টিউশনি করার জন্য বের হই। এ সময় দুই সন্তান ও স্বামী বাসায় ছিলেন। টিউশনি শেষ করে পৌনে ৪টার দিকে বাসায় এসে দেখি ভেতর থেকে দরজা বন্ধ। পরে ডাকাডাকি করে কোনো সাড়া শব্দ না পেয়ে বাসার নিরাপত্তাকর্মীর সহায়তায় ডাকাডাকি করেও কোনো সাড়া শব্দ পাওয়া যায় না।’

তিনি আরও বলেন, ‘একপর্যায়ে দরজা ভেঙে দেখি ঘরের এক রুমে মেয়েটা অচেতন অবস্থায় পড়ে আছে। আরেক রুমে খাটের ওপরে ছেলে অচেতন অবস্থায় পড়ে আছে। ওই রুমের সিলিং ফেনের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় রয়েছে মশিউর। পরে প্রতিবেশীদের সহায়তায় তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক বাবা ও ছেলেকে মৃত্যু ঘোষণা করেন। আর মেয়ের অবস্থা সংকটাপন্ন দেখে শ্যামলী ডক্টরস কেয়ার হাসপাতাল অ্যান্ড ডায়াগানস্টিক সেন্টারের নিবির পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি করা হয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর...
© All rights reserved © 2020-2024 নায়াআলো ডটকম
Developed By HM.SHAMSUDDIN